Home > Course > Curries > ট্রেডিশনাল কাঁচকলার কোপ্তাকারীর রেসিপি ফাঁস! বানান আজই

ট্রেডিশনাল কাঁচকলার কোপ্তাকারীর রেসিপি ফাঁস! বানান আজই

Kanchkolar Kofta Curry (Raw Banana)

কলাগাছ হলো এমন একটি গাছ, যার প্রতিটি অংশ আমাদের কাছে খুব প্রয়োজনীয়। যেমন থোড়, মোচা ও কাঁচকলা এদের ব্যবহার প্রায়সই আমাদের রান্নাঘরে হয়ে থাকে। এই তিনটি জিনিসই হলো আয়রন সমৃদ্ধ, যা আমাদের প্রতেকের শরীরে, বিষেশতঃ মহিলাদের জন্য খুবই দরকারী। আমার আজকের রেসিপি হলো কাঁচকলা দিয়ে তৈরি কাঁচকলার কোপ্তাকারী (Kanchkolar Kofta Curry)। আমি জানি এই কাঁচকলার কোপ্তাকারি নামটা তোমাদের কাছে খুব একটা অজানা নয়, এই রান্না আমরা আমাদের ছোটবেলা থেকে শুনে আসছি বা দেখে আসছি। কিন্তু আজকের এই রান্নার নামটা পুরানো হলেও, এই রেসিপিটা অনেকটাই ডিফারেন্ট। শুধুমাত্র কাঁচকলা ছাড়া অন্য উপকরণগুলো সাধারণ কাঁচকলার কোপ্তাকারী থেকে অনেকটাই আলাদা। তাই এর স্বাদও অন্যরকম, আমি আমার এই রান্নাটা যখনই কাউকে প্রথমবার খাইয়েছি তারা এটার খুব প্রশংসা করেছে, কিন্তু সাধারণ কাঁচকলার কোপ্তাকারীর সাথে কোনো মিল না পাওয়ায়, কেউই নামটার সাথে একমত হতে পারেনি। তোমরা এটা ট্রাই করার পর পারলে কোনো নাম সাজেস্ট করতে পারো।

কিছু অজানা তথ্য :

রান্না শুরু করার আগে তোমাদরকে কোপ্তার সম্পর্কে কিছু শেয়ার চাই। কোপ্তা নামটার সাথে আজ আমরা খুবই পরিচিত। কিন্তু বন্ধুরা এই কোপ্তা কথাটা কোথা থেকে এসেছে তোমরা জানো কি? উর্দু থেকে এসেছে। আর এই কোপ্তা সর্বপ্রথম তৈরী হয়েছিল ভারতীয় উপমহাদেশ, মধ্যপ্রাচ্য ও মধ্য এশিয়াতে। আর সেই সময়ের কোপ্তার মূল উপকরণ ছিল নানা ধরনের মাংসের টুকরো। মাংসের টুকরোর সঙ্গে পিঁয়াজকুচি ও বিভিন্ন মশলা মিশিয়ে বলের আকারে গড়ে কোপ্তা ভাজা হত। কিন্তু বর্তমান সময়ে কোপ্তা শুধু মাংশেই সীমাবদ্ধ নেই, বিভিন্ন মানুষ বিভিন্ন উপকরণ দিয়ে নিজেদের স্বাদ মত কোপ্তা বানিয়ে থাকে। আমার আজকের রান্না কাঁচকলার কোপ্তাকারী হলো সম্পূর্ণ নিরামিষ, তাই কেউ চাইলে কোনো উপোস বা পূজোর দিনে ঝটপট বানিয়ে ফেলতে পারো এই ভিন্ন স্বাদের কোপ্তাকারী।

চলো আর দেরী না করে ঝটপট কাঁচকলার কোপ্তাকারী (Kanchkolar Kofta Curry) রেসিপিটা শুরু করা যাক।

উপকরণ
কোপ্তার উপকরণ:

  • কাঁচকলা – ২টা
  • আলু সেদ্ধ মাঝারি মাপের – ১টা
  • ড্রাই রোস্ট পাউডার – ২চা চামচ
  • হলুদ গুঁরো – হাফ চা চামচ
  • কিসমিস কুচি – ১০ থেকে ১২টা
  • কর্নফ্লাওয়ার – ২ টেবিল চামচ
কারী বানানোর উপকরণ:

  • কাজুবাদাম বাটা – ১০ থেকে ১২টা
  • চারমগজ বাটা – ২ চা চামচ
  • পোস্ত বাটা – ২ চা চামচ
  • কিসমিস বাটা – ১৫ থেকে ১৬টা
  • কালো জিরে – হাফ চা চামচ
  • গোটা শুকনো লঙ্কা – ১টা
  • তেজপাতা – ১টা
  • সাদা তেল – ৩ টেবিল চামচ
  • ঘি – ২ চা চামচ
  • নুন স্বাদ মত
  • চিনি স্বাদ মত

সময় প্রয়োজন : প্রায় ৪৫ মিনিট

প্রণালী

স্টেপ ১

কোপ্তা বানানোর জন্য প্রথমেই আমাদের যেটা করতে হবে তা হলো, শুকনো খোলায় কয়েকটা গোটামশলা যেমন(গোটা জিরে, মৌরি, সাদা মরিচ, গোটা শুকনো লঙ্কা, এলাচ, দারুচিনি) রোস্ট করে নিতে হবে। এরপর মশলাগুলি একটু ঠান্ডা হলে মিহি করে বেটে নিতে হবে। বন্ধুরা তোমরা নিশ্চই এটা জানো যে গরম অবস্তায় মশলাগুলি নরম থাকে, তাই তা ভালো ভাবে গুঁড়ো হবেনা, কিন্তু যখন এটা ঠান্ডা হয়ে মুচমুচে হয়ে যায়, তা অতি সহজেই মিহি করে গুড়ো হয়ে যায়।

স্টেপ ২

এরপর কাঁচকলা খোসা ছাড়িয়ে, হলুদ দিয়ে প্রেসার কুকারে সেদ্ধ করে নিতে হবে। কাঁচকলা কেটে সাথে সাথে হলুদ মাখিয়ে নিলে তা আর কালো হয় না। কলা সেদ্ধ হয়ে গেলে একটি বাটির মধ্যে রেখে সেদ্ধ আলুর সাথে ভাবে মেখে নিতে হবে।

স্টেপ ৩

কলার ওই মিশ্রণটির মধ্যে একে একে গুঁড়ো করা রোস্টেড পাউডার, নুন, চিনি ও কিসমিস ভালো ভাবে মেখে নিতে হবে। একদম শেষে কর্নফ্লাওয়ার অ্যাড করতে হবে মিশ্রণটি ধরে রাখার জন্য।

স্টেপ ৪

কোপ্তা বা বড়া বানানোর জন্য প্রথমে হাতে একটু তেল মেখে নিতে হবে। এরপর ওই মিশ্রণটির থেকে কিছুটা অংশ নিয়ে হাতের সাহায্যে পছন্দ মত আকারে গড়ে নিতে হবে। কিন্তু এটা খুব পাতলা আকারে গড়তে হবে, না হলে ভিতর পর্যন্ত কুক হবে না।

স্টেপ ৫

একটি প্যান-এ সামান্য তেল গরম করে কোপ্তাগুলিকে স্যালো ফ্রাই করতে হবে, মাঝারি আচে| হালকা বাদামী ও মচমচে করে দুই পিঠ ভেজে তুলে নিতে হবে।

স্টেপ ৬

এরপর কারী বানানোর জন্য ওই একই প্যান-এ একটু তেল ও খুব সামান্য ঘি গরম করতে হবে। আমি শুধুমাত্র ফ্লেবারের জন্য ঘি দিলাম তোমরা চাইলে নাও দিতে পারো। তেল গরম হয়ে গেলে তাতে শুকনো লঙ্কা, তেজপাতা ও কালোজিরে দিয়ে একটু নাড়াচারা করতে হবে। সুন্দর গন্ধ বের হতে শুরু করলে তাতে একে একে পোস্ত বাটা, কাজুবাদাম বাটা ও চারমগজ বাটা দিয়ে একটু কষে নিয়ে, কিসমিস বাটা, নুন ও চিনি দিয়ে দিতে হবে।

স্টেপ ৭

মশলা থেকে তেল ছাড়তে শুরু করলে সাথে সাথে তার মধ্যে সামান্য জল মিশিয়ে ফুটতে দিতে হবে।

স্টেপ ৮

গ্রেভি ঘন হয়ে এলে, কোপ্তাগুলি গ্রেভির মধ্যে দিয়ে সাবধানে গ্রেভির সাথে মাখিয়ে প্লেটে নামিয়ে নিতে হবে। বেশী সময় ধরে রান্না করলে কোপ্তা ভেঙ্গে যেতে পারে। তোমরা চাইলে যে প্লেটে পরিবেশন করবে, সেই প্লেটে ভাজা কোপ্তাগুলি রেখে উপর থেকে গ্রেভি ঢেলে দিতে পারো। যে কোনো নিরামিষ দিনে লুচি বা পরোটার সাথে গরম গরম কাঁচকলার কোপ্তাকারী পরিবেশন করে দিনটা সার্থক করে তুলতে পারো।

Please Note: If you are comfortable with English only then Check below, all the Ingredients and Procedure is clearly written in English for your convenience.

Recipe: Kanchkolar Kofta Curry

A banana tree is a very useful tree, every part of which is very important to us. Among them, Thora, Mocha, and  Raw Banana are often used in our kitchen. These three things are rich in iron, which is very useful in the body of each of us, especially women, and my recipe for today is a Kanchkolar Kofta Curry. I know that the name Kofta Curry is not very unfamiliar to you, we have been hearing or seeing this cooking since our childhood. Though the name of today’s recipe is very old, the recipe is completely different. So the taste of it also different, every time I got appreciated when I ate someone this recipe, but because it didn’t match any of the common the Kofta Curry, so no one could agree with the name of Kanchkolar Kofta Curry. If you can try it, then you can suggest a name.

Some Unknown Facts :

Before you start cooking, I would like to share some information about Kofta. Today we are very familiar with the name Kofta. But friends, do you know where this Kofta word came from? Comes from Urdu, and this Kopta was first made in the Indian subcontinent, the Middle East, and Central Asia. The main ingredients of kofta at that time were various kinds of pieces of meat, Kopta was fried on an average in the shape of a ball by mixing onion pieces and various spices with a piece of meat. But at present, kofta is not limited to meat, different people make kofta according to their own taste with different ingredients. My today recipe Kanchkolar Kofta Curry is completely vegetarian, so if anyone wants, you can make this Kofta Curry instantly on any fasting or puja day.

To know more about Kanchkola or Raw Banana health benefits Click here.

INGREDIENTS
  • 2 Raw Banana (Kanch Kola)
  • 1 medium size boiled Potato (Aloo)
  • ½ tsp Turmeric powder
  • 2 tsp Dry roast powder(cumin seeds,Feenal seeds,White Peeper/Sada marich, Dry Chili, Cardamom/Elach,
    Cinnamon stick/Daruchini))
  • ¼ tsp kalo Jira
  • 10 to 12 Cashew Nuts (kaju) Paste
  • 15-16 Raisins (Kishmish) Paste
  • 10 to 12 chopped raisins
  • 2 tsp Dried Melon Seeds (Charmagaz) Paste
  • 2 tsp poppy Seeds (posto) Paste
  • Salt as per taste
  • Sugar as per taste
  • 2 tbsp Refine Oil
  • 1 tsp Ghee

TIME REQUIRED : around 45 minutes

PROCEDURE

STEP 1

Dry roast allspice (Cumin seeds/Jira, Feenal seeds/Mauri, White Peeper/Sada Marich, Dry Chili, Cardamom/Elach, Cinnamon stick/Daruchini) and then grind them into a fine powder.

STEP 2

Peeled raw banana, and boiled it with some turmeric powder and water in a pressure cooker. Then mash them with a boiled potato.

STEP 3

In the Raw Banana, mixture applies all of the spice roasted powder and mix well. After that gently mix raisins, salt, and sugar.

STEP 4

Make tiny Vada’s out of the mix and put them aside, after that fry the Vada’s on medium flame in hot oil until they are brown, now Drain it from oil and stay aside.

STEP 5

Now hot some ghee in the pan add Kalo Jira. When starts to splutter, add (Cashew nut, Poppy seeds, Raisins, and Dried Melon Seeds) paste and saute.

STEP 6

Sauté until oil comes from the sides of the pan then add a little salt, sugar, and water, then mix gently and bring it to boil.

STEP 7

Add kofta fried, and boil it for 1-2 minutes, and finally, Kanchkolar Kofta Curry is ready to serve.
*** Here I listed two different Kofta Curries, and you can also try them Bread Kofta Curry & Peas Kofta Curry ***
foodsfunda
Dedicated to all the food lovers. We share Easy Homemade Recipes, Experimental Recipes, Quick Recipes and lot's of Tips and Hacks which will makes your life more easy and problem FREE.