Home > Course > Curries > এঁচোরকারী যদি রাঁঁধো এভাবে তো মাটন ও হার মেনে যাবে

এঁচোরকারী যদি রাঁঁধো এভাবে তো মাটন ও হার মেনে যাবে

Echor Curry by foodsfunda.com

গরম কালে এঁচোড় মোটামুটি প্রায় সব রান্নাঘরেই কম বেশি দেখা যায়। কারণ আমরা সবাই জানি এচোড় গরমকালীন ফল। কাঁচাতে যাকে আমরা বলি এঁচোড়, আর পাকলে তার নাম হয় কাঁঠাল। এই এঁচোড়কে আমরা নানারকমভাবে রান্না করে থাকি। কেউ আমিষ, আবার কেউ নিরামিষ। আজ আমি তোমাদের সাথে যেটা শেয়ার করব, তা হল এঁচোড়কারী (Echor Curry)। এই এঁচোড়কারী হলো আমার দিদার থেকে শেখা, তাই আজকের রান্নাটা দিদাকে Dedicated করলাম।

আমার মনে আছে ছোটবেলাতে আমি কোনো সবজি খেতে ভালবাসতাম না। আর যেই কারণে মামারবাড়ি গেলে খাওয়ার সময় দিদার থেকে বকা শুনতাম। কারণ দিদা প্রতিদিন কম করে শুধু ৮ থেকে ১০ রকম সবজির পদ রান্না করত। হয়ত তোমাদের শুনলে একটু অবাক লাগবে; তাতে শুধু শাক হয়ত ২ থেকে ৩ রকম হত, চাটনি হয়ত ২ ধরনের হত, একটা মিষ্টি, একটা টক। তার পর অন্য আরো ৩ রকমের তরকারি।

এঁচোড় খেতে আমি একদম ভালবাসতাম না, আর দিদাই আমাকে জোর করে এচোড় খাওয়াতে শিখিয়েছিল, শুধু এচোড় কেন বলছি আরও অনেক সবজি দিদার জন্যে আমি খেতে শিখেছি। আজ যে এঁচোড়কারী তোমদের সাথে শেয়ার করব, তা একটু বড় হয়ে, দিদার থেকেই শিখেছিলাম। দিদা নিরামিষ এঁচোড় ও খুব ভালো রান্না করতো। সেটা আর একদিন তোমাদের সাথে শেয়ার করব। বাংলাতে এঁচোড়কে গাছ পাঁঠা বলা হয়, এটা আমরা সবাই জানি। কারণ এটা পাঁঠার মাংসের মত রান্না করলে, পুরোপুরি না হলেও কিছুটা ঐরকম লাগে। গাছ পাঁঠা রান্না শুরু করার আগে এর সম্পর্কে জানা নাজানা কিছু তথ্য একটু ছোটো করে শেয়ার করে নেবো তোমাদের সাথে।

কিছু অজানা তথ্য :

ইন্ডিয়া হলো বিশ্বের সবচেয়ে বড় উত্পাদক এঁচোড় বা কাঁঠালের, যেই কারণে ইন্ডিয়াকে এঁচোড়ের জণ্মস্থান বলে মনে করা হয়। গোটা ইন্ডিয়াতে ১৪,৮২৬ একর জমিতে এঁচোড়ের ফলন হয়। এই গাছ বাঁচে ৬০ থেকে ৭০ বছর। কাঁঠাল গাছের সমস্ত অংশ আমাদের কাজে লাগে এটা কি তোমাদের জানা আছে? এই গাছের পাতা গবাদি পশুদের খাবার, আবার medicine তৈরীতে এর শিকড়েরও ব্যবহার হয়। আর এই গাছের কাঠ দিয়ে আসবাবপত্রও বানানো হয়।

চলো আর দেরী না করে ঝটপট রেসিপিটা শুরু করা যাক।

উপকরণ
  • এঁচোর ছোট টুকরো করে কাটা – ২৫০ গ্রাম
  • আলু মাঝারি মাপের কাটা – ২ টি
  • বড়মাপের পেঁয়াজ (বাটা) – ২ টি
  • রসুন বাটা – ১ চা চামচ
  • আদাবাটা – ১ চা চামচ
  • টমাটো মাঝারি মাপের কাটা – ২ টি
  • লংকা গুঁড়ো – ২ চা চামচ
  • হলুদ গুঁড়ো – ১ চা চামচ
  • ধনে গুঁড়ো – ১ চা চামচ
  • জিরা গুঁড়ো – হাফ চা চামচ
  • এলাচ – ৩ টি
  • দারুচিনি – হাফ ইঞ্চি স্টিক
  • তেজপাতা – ২ টি
  • সরষের তেল – হাফ কাপ
  • নুন স্বাদমত
  • চিনি স্বাদমত

সময় প্রয়োজন : প্রায় ১ ঘন্টা

প্রণালী

স্টেপ ১

বন্ধুরা এঁচোরকারী রান্না করার জন্য টুকরো করে কাটা এচোর ব্যবহার করতে পারো, কারণ আজকাল বাজারে সহজেই কাটা এঁচোর পাওয়া যায়। আর যদি একান্তই না পাও তাহলে একটু কষ্ট করে কেটে নাও। আমি আমার মা-কাকিমাদের দেখেছি তারা এঁচোর কাটার সময় হাতে সরষের তেল মেখে নিত, কারণ এঁচোরে কষ থাকে আর সেই কষে হাত একদম কালো হয়ে যায়, আর তা সহজে উঠে না। তাহলে বন্ধুরা, তোমরাও এঁচোর কাটার আগে তেল ব্যবহার করতে ভুলোনা যেন। এঁচোরের টুকরো গুলো ভালোভাবে ধুয়ে একটি পাত্রে জল ও নুন দিয়ে সিদ্ধ করতে হবে। ছুরি বা কাটা চামচ দিয়ে চেক করে দেখে নেবে এঁচোর সিদ্ধ হয়েছে কিনা! এঁচোর সিদ্ধ হয়ে গেলে তা নামিয়ে জল ঝরিয়ে নিতে হবে।

স্টেপ ২

একটি কড়াইতে তেল গরম করে, প্রথমে আলু সামান্য নুন ও হলুদ দিয়ে বাদামী করে ভেজে তুলে নিতে হবে।

স্টেপ ৩

এরপর কড়াইতে আরো খানিকটা তেল গরম করে তাতে তেজপাতা ও গোটা গরমমশলা (এলাচ, দারুচিনি) দিয়ে নাড়াচাড়া করতে হবে।

স্টেপ ৪

যখন গরম মশলা থেকে সুগন্ধ বার হতে শুরু করবে, তখন পেঁয়াজ বাটা দিয়ে ভালোভাবে ভাজতে হবে বাদামী না হওয়া পর্যন্ত।

স্টেপ ৫

পেঁয়াজের color change হতে শুরু করলে তাতে রসুন বাটা দিয়ে একটু কষিয়ে, আদা বাটা দিতে হবে। সাথে একে একে হলুদগুড়ো, লঙ্কাগুড়ো, ধনেগুড়ো, ও নুন দিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে তাতে tomato puree দিয়ে ভালোভাবে কষতে হবে। সাথে একটু চিনি দিতে ভুলোনা যেন, তাতে তরকারির teste আরো একটু বেড়ে যাবে।

স্টেপ ৬

তেল যখন মশলা থেকে আলাদা হতে শুরু করবে তখন একটু উষ্ণ জল দিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে নাও ও আর একটু কষতে থাকো। তোমার কাছে যদি বাটা মশলার জল থাকে তাও ব্যবহার করতে পারো, ছোটবেলা থাকে আমরা সেটাই দেখে আসছি। এরপর এর মধ্যে এচোর ও আলু দিয়ে ভালোভাবে কষতে হবে। কষতে কষতে জল কমে এলে একটু হাল্কা গরমজল কড়াইতে ঢেলে চাপা দিয়ে কিছুক্ষণ রান্না করতে হবে। আলু ও এঁচোর ভালোভাবে সিদ্ধ হয়ে গেলে ও গ্রেভি ঘন হতে শুরু করলে সামান্য ঘি (Ghee) দিয়ে একটা প্লেটে নামিয়ে নাও। এরপর গরম গরম ভাত বা পরোটার সাথে খেয়ে বোলো মার্টনের অভাব কিছুটা পূরণ করলো কিনা?

যদি সাবেকী কোনো কারী বানাতে চাও তাহলে বাঁধাকপির তরকারী ট্রাই করে দেখতে পারো, আশাকরি এই রেসিপিটাও ভালো লাগবে।

Please Note: If you are comfortable with English only then Check below, all the Ingredients and Procedure is clearly written in English for your convenience.

Recipe: Echor Curry

In Summer, Echor/Raw-Jackfruit is more or less seen in almost all the kitchens. Because we all know the one-time fruit. What we call raw is Echor, and when ripe it is called Jackfruit. We cook this Echor in different ways. Some like veg, and other like non-veg. What I’m going to share with you today is Echor Curry. I learned this from my Dida, so I dedicated this recipe to my sweet Dida.

I remember when I was a child and I did not like to eat any vegetables. And for whatever reason, when I went to my uncle’s house, my Dida angry with me because I didn’t eat much. My Dida used to cook 8 to 10 kinds of vegetables every day. You might be a little surprised to hear that; There might have been 2 to 3 types of vegetables, 2 types of chutney, one Sweet, one Sour. Then 3 more types of curry. OMG!

I didn’t like to eat Echor/Raw-Jackfruit at all, and My Dida taught me to eat Echor by force, It’s not only Echor, I learned to eat so many vegetables for Dida. I will share with you today that I have learned from Dida when I was a little older. In Bengali, Echor/Raw-Jackfruit is called “Gaach-Patha”, we all know that. Because when it is cooked like goat meat, it feels a bit like that even if not completely. Before I start cooking “Gaach-Patha”, I will share some unknown information with you.

Some Unknown Facts :

India is the largest producer of Jackfruit in the world, which is why India is considered to be the birthplace of Jackfruit. Yields 14,626 acres across India. This tree lives around 60 to 70 years. Did you know that all parts of the Jackfruit tree are useful to us? The leaves of this tree are used for making food for cattle and roots for medicine. Furniture is also made from the wood of this tree.

Let’s start the recipe without wasting more time.

INGREDIENTS
  • Echor(Raw Jack Fruit)Cut in cubes – 400gm
  • Potato/aloo (Cut in cubes) – 1 Pics
  • 2 Onion paste (large)
  • Garlic paste – 1 tsp
  • Ginger paste – ½ tsp
  • Tomato (Pureed) – 2 Pics big
  • Red Chili powder -2 tsp
  • Turmeric powder – ½ tsp
  • Coriander seed powder – 1 tsp
  • Cumin seed powder – ½ tsp
  • Cardamoms – 3 pics
  • Cinnamon – 2 sticks
  • Bay leave – 2 pice
  • Salt to taste
  • Sugar to taste
  • Muster oil

TIME REQUIRED : around 1 hours

PROCEDURE

STEP 1

Clean the pieces of the Echor and boil in hot water with some turmeric. Till echor become soft. Remove and drain the extra water and keep aside.

STEP 2

Heat oil in a Kadai and fry the aloo until becomes soft and golden. Take it out, and fry the Eachor about 7-8 minutes in the remaining oil. Take it out and keep aside.

STEP 3

Put more oil in the same Kadai and add the bay leaves, whole Garam Masala (cardamom, cinnamon). saute for a few secs.

STEP 4

After they start crackling add the garlic and saute till the change color. Now add onion paste and fry until nicely golden brown.

STEP 5

Add ginger and stir for another few mins. Add Turmeric powder, Coriander powder, Tomato puree, Red Chili powder, salt, and some Sugar. And stir for another few mins. Saute the masala until oil gets separated.

STEP 6

When the oil gets separated from masala then add some warm water and stir. Add fried Echor, fried potatoes, mixed gently with the curry, and stir. Finally, add some warm water, cover it for a few mins.

When the gravy becomes thick add some ghee and mix well, switch off the flame and keep it covered for a few mins. Now “Echor Curry” is ready to serve and enjoy this delicious Echor Curry with steamed rice or Roti.

Click Here to know more about Raw Jackfruit nutrition value.
Courtesy : www.healthifyme.com

foodsfunda
Dedicated to all the food lovers. We share Easy Homemade Recipes, Experimental Recipes, Quick Recipes and lot's of Tips and Hacks which will makes your life more easy and problem FREE.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *